২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ | ১৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সংবাদ শিরোনামঃ
বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে এমপি রনজিত সরকার সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পূর্ব তেঘরিয়া বন্যার্তদের মাঝে ত্রান বিতরণ।  বিশ্বম্ভরপুরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করছেন এমপি ড. মোহাম্মদ সাদিক অগ্রিম ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন। প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপে জমি ও গৃহ প্রদান কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে প্রেস ব্রিফিং সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান পদে চপল পুনরায় জয়ী।  তাহিরপুরে দুপুর গড়ালেও খোলা হয়নি বিদ্যালয়ের তালা সাংবাদিকদের গালিগালাজ করেন সহকারী শিক্ষক তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ঃ চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান আলমগীর খোকন ও মহিলা ভাইস আইরিন বিজয়ী তাহিরপুরে ৯৮ ভাগ ধান কাটা সম্পন্ন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেলেন ড,আতাউল গনি সাবেক এমপি নজির হোসেনের মৃত্যু সবাই সচেতন থাকলে দেশ এগিয়ে যাবেই- তথ্য কমিশনার প্রকৃতির সঙ্গে যারা অপকর্ম করছেন, তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে–সুলতানা কামাল সুনামগঞ্জ -১ বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন রনজিত সরকার সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা  ইউ এন ও এর সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময়।  বিশ্বম্ভরপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত নানান কর্মসূচিতে তাহিরপুরে বিজয় দিবস পালিত সুনামগঞ্জে বাউল কামাল পাশার ১২২তম জন্মবার্ষিকী পালিত তাহিরপুরে হানাদার মুক্ত দিবস পালিত যাদুকাটা নদীতে দুই নৌকার সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৩
বিশ্বম্ভরপুরে নদীর তীর দখল করে স্থায়ী স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ

বিশ্বম্ভরপুরে নদীর তীর দখল করে স্থায়ী স্থাপনা নির্মানের অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি, বিশ্বম্ভরপুর (সুনামগঞ্জ)

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার এক সময়কার খরস্রোতা মরা যাদুকাটা নদীর শাখা নদীটি দখল ও ভরাটে অনেক আগেই নাব্যতা হারিয়েছে। শক্তিয়ারখলা বাজার ও সিরাজপুর গ্রামের মাঝখান দিয়ে বয়ে যাওয়া মরা যাদুকাটা নদীর শাখা এ নদীটি এক সময় স্রোতবাহী ছিল। বাজারকে কেন্দ্র করে নদীর পূর্বপাড় দখল করে দোকান ঘর ও বাসা বাড়িসহ দোকানপাট গড়ে তোলেছেন প্রভাবশালীরা।

ফলে নদীটি ছোট হয়ে আসছে এবং বন্যার সময় সহজে পানি নিষ্কাশন না হয়ে জলমগ্ন হয়ে পড়ে পুরো এলাকা। এর ফলে আবাদি জমি ও বাড়িঘরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। বন্যার সময় নদী দিয়ে পানি কম প্রবাহিত হওয়ার ফলে এ নদীর উজানে বাগগাঁও- ও ডালা নামক গ্রাম দুটি ক্রমান্নয়ে ভাঙ্গনের  কবলে পতিত।

প্রায় ১৫ বছর পূবে বর্তমান বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. এরশাদ মিয়া মাকের্ট নিমার্ণ করার পর এলাকার আরো  অনেকেই তীর দখল করে  দোকান  ঘর নিমার্ণ করে নিশ্চিন্তে ব্যবসা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে বাজারের উজানের বাগগাঁও ডালারপাড় গ্রাম আরসিসি ব্লকের মাধ্যমে নদী ভাঙ্গন রোধে নদী রক্ষা কমিশন থেকে একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে  যা আগামি অর্থবছরে এ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে। স্থানীয়দের মতে শক্তিয়ারখলা বাজারের আশপাশে গড়ে উঠা নদীতে অবৈধ এসব স্থাপনা উচ্ছেদ না করা হলে নদী রক্ষা কমিশনের প্রকল্পের কাজ ব্যাপক ক্ষতি হতে পারে।

বাগগাঁও গ্রামের ফরিদ আলম বলেন, নদী দখল করে বাজারের স্থায়ী স্থাপনা গুলো উচ্ছেদ না করা হলে নদী রক্ষা কমিশনের যে প্রকল্পের কাজ করবে সে কাজ টেকসই হবে না।

জানা যায়, সম্প্রতি বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. এরশাদ মিয়া তার মাকের্ট স্থায়ী স্থাপনা নিমার্ণকালে উপজেলা প্রশাসন নিমার্ণকাজ বন্ধ রাখতে আদেশ দেন। কিন্তু প্রশাসনের আদেশ উপেক্ষা করে দোকানঘর নির্মাণের কাজ করে চলেছেন তিনি। এবিষয়ে চেয়ারম্যান মো. এরশাদ মিয়া বলেন, আমি যেখানে ঘর নির্মাণ করতেছি সেখানে আমার পুরাতন ঘর ছিল। আমি পুরাতন ঘর ভেঙ্গে নতুন ঘর তৈরি করতেছি।

সিরাজপুর গ্রামের বাসিন্দা ফখরুদ্দিন বলেন, এভাবে অবৈধ স্থাপনা তৈরী অব্যাহত থাকলে এককালের খরস্রোতা এ নদীটি  পলি পড়ে ও অব্যাহতভাবে দখলের কারণে ছোট হয়ে পড়েছে। ফলে সামান্য বন্যায় দু’কুল ছাপিয়ে পানি লোকালয়ে ঢুকে পড়ে ঘরবাড়ির ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হবে।নদী রক্ষায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদসহ নদী খনন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই বলেও জানান তারা।

এ বিষয়ে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)আসমা বিনতে রফিক বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. সাদি উর রহিম জাদিদ বলেন, অবৈধ দখলদারদের বিরোদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন





পুরাতন খবর খুঁজুন

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার (রাত ১২:৪১)
  • ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৭ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি
  • ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (বর্ষাকাল)